চুল স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ও লম্বা করার প্রয়োজনীয় কিছু টিপস

যুগ যুগ ধরেই লম্বা চুলের আলাদা কদর রয়েছে। মাঝখানে লম্বা চুলের ফ্যাশন একটু কম ছিল। এখন আবার লম্বা চুলের ফ্যাশনই বেশি। বিশেষ কিছু নিয়ম মেনে চললে আপনার ও হতে পারে সুন্দর লম্বা চুল।

ধুলাবালি, রোদ, অপুষ্টির শিকার হয়ে দিনে দিনে আপনার চুলের বৃদ্ধির পরিমান হ্রাস পাচ্ছে। আপনার এত শখ লম্বা চুলের অথচ কিছুতেই লম্বা করতে পারছেন না।

আজ আপনার জন্য থাকছে চুল স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ও লম্বা করার প্রয়োজনীয় কিছু টিপসঃ

১। অনেকেরই চুলের আগা ফাটার সমস্যা রয়েছে। এটি চুলের স্বাস্থ্য বৃদ্ধির জন্য ক্ষতিকর। নিয়ম করে প্রতি তিন মাস পর পর চুলের আগা ছাঁটুন।

২। রাতে ঘুমানোর সময় চুল ভালোভাবে আঁচড়ে খুব হালকা করে চুল বাঁধুন। শক্ত করে চুল বাঁধলে চুলে রক্ত সঞ্চালন কমে যায় এবং চুলের গোঁড়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে খুব দ্রুত চুল পড়তে শুরু করে।

৩। ভেজা চুল কখনো আঁচড়াবেন না। ভেজা অবস্থায় চুলের গোঁড়া নরম থাকে। ফলে এসময় চুল আঁচড়ালে ছিঁড়ে যেতে পারে। তাই গোসল এর আগে চুল আঁচড়ে নিন।

৪। সপ্তাহে যেকোনো তিনদিন ঘুমোতে যাওয়ার আগে নারিকেল তেল অথবা অলিভ অয়েল সামান্য গরম করে মাথার ত্বকে আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। আপনার চুলের গোঁড়া শক্ত হবে, চুলের গোঁড়ায় রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে এবং চুল ঝরঝরে হবে।

৫। চুলে শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে মাথার ত্বকে যেন কিছুতেই কন্ডিশনার না লাগে। প্রচুর পরিমান পানি দিয়ে চুল ধুতে হবে কন্ডিশনার দেয়ার পর।

৬। চুলের স্টাইলিং যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। আপনি যদি প্রতিদিন চুল সোজা ও কোঁকড়া করার জন্য স্ট্রেইটনার ও কার্লার ব্যবহার করেন তাহলে অকালেই আপনার চুল নষ্ট হয়ে যাবে। তবে আপনি বিশেষ অনুষ্ঠানে চুলের স্টাইল পরিবর্তন করতে পারেন তবে সেটা অনেক দিন পর পর হলেই ভাল হয়।

৭। চুলের জট ছাড়ানোর সময় চুলের প্রতি কোমল হোন। ফাঁকা দাঁতের চিরুনি ব্যবহার করুন চুলের জট ছাড়াতে। বেশি জট হলে প্রথমে আঙ্গুল দিয়ে ছাড়িয়ে নিন তারপর মাথায় চিরুনি দিন।

৮। আপনার চুলের ধরন অনুযায়ী শ্যাম্পু নির্বাচন করুন। বাজারে অনেক রকম শ্যাম্পু পাওয়া যায় আপনার চুলের জন্য কোনটি ভাল হবে ঠিকভাবে খুঁজে বের করুন।

৯। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় বেশিরভাগ শাকসবজি, ফলমূল রাখুন। প্রতিদিন এক গ্লাস দুধ এবং একটি ডিম খান। চুলের সঠিক বৃদ্ধি হওয়ার জন্য প্রোটিন খুবই প্রয়োজন তাই দুধ, ডিম এর বিকল্প নেই।

১০। ধূমপান থেকে বিরত থাকুন এবং কোমল পানীয় কম গ্রহন করুন। তামাক, ক্যাফেইন এবং কোমল পানীয়তে থাকে সোডা যা চুলের বৃদ্ধি কমিয়ে দেয়।

১১। দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকুন এবং প্রতিদিন ৮-৯ ঘণ্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন। নিদ্রাহীনতা চুল বৃদ্ধির অন্তরায়।

১২। নিয়ম করে চুলে তেল ব্যবহার করুন। কারণ তেল চুলের প্রয়োজনীয় পুষ্টি যোগায়। তেলের অভাবে চুল ভেঙ্গে যায় এবং চুল পড়া শুরু হয়।

লম্বা চুল দিয়ে আপনি সকলকে আকর্ষণ করতে পারবেন। তাই সময় থাকতে যত্নবান হোন আপনার চুলের প্রতি আর আপনি হোন দীঘল কালো চুলের অধিকারী।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *