A1 Esports

Pubg PMGC Final 20-21 । A1 Esports Bangladesh

অনলাইনের গেমিং প্ল্যাটফর্মের Pubg -তে সম্ভাবনার স্বপ্ন দেখেও দেখা হলোনা A1 Esports বাংলাদেশি গেমারদের। গেমিং বিশ্বের অনেক বড় বড় গেমারদের পিছনে ফেলে সেরাদের শীর্ষে জায়গা করে নেয় বাংলার এই টিমটি। বাংলাদেশের এই টিমটি নিজেদের সেরাটা ফিয়ে বিশ্বের এই মঞ্চে নিজেদের অবস্থান তৈরী করে নেয়।

Pubg Mobile Gaming PMGC এর বিশ্ব মঞ্চ দুবাইয়ে অংশ নিতে বাংলাদেশের A1 Esports এই টিমটি অংশ নেয় বিশ্বের অনেক গুলো দেশের গেমারদের সাথে।

যা অনলাইন গেমারদের জন্যে একটা দৃষ্টান্ত।

লাল-সবুজের স্বপ্ন জয়ের স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বের লাখো গেমারদেরকে পিছনে ফেলে Grand Final -এ জায়গা করে নেয় A1 Esports বাংলাদেশের এই টিমটি।

দুবাইয়ে হওয়া এই বিশ্ব পাব্জি টুর্নামেন্টে অংশ নিতে বাংলাদেশ এই দলটি দুবাইয়ে যায়। সেখানে তারা টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহন করে।

Grand Final –

২১ জানুয়ারী শুরু হয় গ্র্যান্ড ফাইনাল দুবাইয়ে। সেখানে প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশের ৭ নাম্বার অবস্থানে থাকে।

তবে ২য় দিনে ১৬ দলের মধ্যে ১৫ নাম্বারে নেমে যায় বাংলাদেশ।

এরপর ৩য় দিনে একদম সিরিজের তলানীতে চলে যায় A1 Esports বাংলাদেশের এই দলটি।

স্বপ্নের হাতছানি যেনো স্বপ্নেই থেকে যাচ্ছিলো বাংলাদেশের জন্যে।

শেষ দিনে মোট ৮টি ম্যাচ ছিলো তাদের জন্যে।

শিরোপা জয়ের সুযোগ না থাকলেও নিজেদের অবস্থান তৈরী করে মুখিয়ে ছিলো A1 Esports পাব্জি দলটি।

এদিনের শুরুটা ভালোভাবেই ছিলো। ১ম ম্যাচে ৭নাম্বারে থেকে শেষ করে। এরপর অবস্থান আবারো নেমে যায় হয় ১০নাম্বার।

কোনোভাবেই যেনো তারা সুবিধা করতে পারছিলোনা দেশের এই গেমিং দলটি।

শেষ সময়ে এসে ৭ম নাম্বার ম্যাচে গেমিং দুনিয়ায় নিজেদের সক্ষমতার জানান দেয় তারা।

১৬টি Kill point নিয়ে, বাকি সেরা ১৫টা টিম কে এলিমেনেট করে Chicken Dinner জিতে নেয় তারা।

এরপর তারা উঠে আসে ১৬ দলের টুর্নামেন্টের ১৪ নাম্বারে। তবে শেষ ম্যাচে নিজেদের জায়গা ধরে রাখতে ব্যর্থ হয় A1 Esports পাব্জি। শেষ পর্যন্ত ১৫ নাম্বার দল হিসেবে টুর্নামেন্ট শেষ করে তারা।

A1 Esports

অভিজ্ঞতার ভুল গুলো কাটিয়ে ভবিষ্যতে আরো ভালো করবেন এই গেমার রা এটিই আশা করা যায়।১৬টি গেমিং দলের টুর্নামেন্ট শিরোপা Winner Nova Esports দলটি। The Gunslinger খেতাব জিতেছেন Suk (Chinese Player) যিনি Four Angry Men দলের হয়ে খেলেছেন।

বাংলাদেশের Dante জিতেছেন The Survivor খেতাব।

কোনো রকম পৃষ্টপোষকতা ছাড়াই তারা বিশ্বের মঞ্চে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করার চেষ্টা করেছে।

হয়ত সামনে আরো বেশি পৃষ্টপোষকতা এবং সংশ্লিষ্টদের নজরে আসলে বিশ্ব মঞ্চের এই শিরোপাটাও তারা জিততে পারবে একদিন।

Author: admin